সাম্প্রতিক কালে বন্যপ্রানের অবক্ষয় ও ক্রমহ্রাসমান জনসংখ্যা সত্যিই চিন্তার বিষয়। এই পরিস্থিতিতে সবচেয়ে বেশি দরকার যা তা হল সঠিক ব্যবস্থাপন কৌশল গ্রহণের মাধ্যমে বিপদ সীমায় বা বিপদ সীমার কাছাকাছি অবস্থান করা প্রাণীকুলের সংখ্যা বাড়ানো ও তাদের বিপজ্জনক পরিস্থিতি থেকে বার করা। কিন্ত চটজলদি ফল লাভের জন্য গৃহীত বিস্তারিত অধ্যায়ণ বিহিন সংরক্ষণ পদ্ধতিতে কাজের কাজ তো কিছু হয়েই না বরং যা ঘটে তা হল অধিকাংশ হিতের বিপরীত। এমনি এক হিতের বিপরীত ফলের সাক্ষী হল স্যান ডিয়েগোর সি-ওয়ার্ল্ড বন্যপ্রাণ প্রদর্শনশালা। অধিকতর প্রজনন ও মেরু ভাল্লুকের সংখ্যা বৃদ্ধি উদ্যেশ্যে পিটসবার্গ চিরিয়াখানায় স্হানান্তর করা হয় Slowflake কে যার ফল স্বরূপ সাথি মাদা-ভাল্লুক Szenja খাওয়া-দাওয়া বন্ধ করে দেয় এবং অবশেষে প্রান হারায় এবং এর সব কিছুই হয় মানুষের মনোরঞ্জনের উদ্যেশ্য।

Link_1

Link_2

বন্যপ্রানের সংরক্ষণের দৃষ্টিভঙ্গি থেকে দেখলে এটি একটি উত্তম পদক্ষেপ হলেও কেন স্যান ডিয়েগোর মত জায়গায় সঠিক পর্যবেক্ষন ছাড়া এমন একটি পদক্ষেপ নেওয়া হল, আর নেওয়া হলেও Szenja-র এমন অবস্হার খবর পাওয়ার পর Snowflake-কে কেন ফিরিয়ে আনা হল না তা ভাবাচ্ছে সকলকেই।

ছবি সংগৃহিত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *