রায়গঞ্জ কুলিক পক্ষীনিবাস এর পাখি গণনা-2018

২০১৮ সালের কুলিক পক্ষীনিবাস এর পাখি গণনার কাজ সম্পন্ন হল। এশিয়া মহাদেশের সর্ববৃহৎতম এই পক্ষী নিবাসে এই বছরের পাখি গণনার কাজ শুরু হয়েছিল 15 ই সেপ্টেম্বর। এই গণনার কাজে বনদপ্তর এর সঙ্গে অংশগ্রহণ করেছে বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন যেমন উত্তর দিনাজপুর পিপল ফর অ‍্যানিম‍্যালস, রায়গঞ্জ পিপল ফর অ‍্যানম‍্যালস ,এইচ এম টি এ এবং রায়গঞ্জ ফটোগ্রাফি ক্লাব। উপস্থিত ছিলেন বিভাগীয় বনাধিকারিক দিপর্নো দত্ত মহাশয়, কুলিক এর রেঞ্জার বরুন সাহা মহাশয় এবং বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সদস্যরা ।গননা চলেছে দিন ধরে- 15 এবং 16 সেপ্টেম্বর। প্রতিটা গাছের নাম্বারিং করা আছে । গুনে নেওয়া হয়েছে কোন গাছে কয়টি পাখির বাসা আছে। সেই পাখির বাসা কে 4 দিয়ে গুণ করে পাখির সংখ্যা বের করা হবে। প্রত্যেকে তাদের সবার সংখ্যা যোগ করে বনদপ্তর কে জমা দেবে এবং শেষে গড় হিসাব করে বের করা হবে মোট পাখির সংখ্যা কত। এই বছর তেমন প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হওয়াতে আমরা আশা আশা করছি যে পাখির সংখ্যা গতবারের তুলনায় বৃদ্ধি পেয়েছে। আমাদের যে সমস্ত সদস্যরা এই পাখি গণনার কাজে অংশগ্রহণ করেছে তারা হল গৌতম তান্তিয়া,বরুণ চক্রবর্তী, সৌরভ সরকার, সাগর হালদার,প্রতাপ সিং এবং রাজন শর্মা ।বনাঞ্চল বৃদ্ধির পাশাপাশি পাখিদের রক্ষণাবেক্ষণে বনদপ্তর এর ভূমিকা প্রশংসনীয়। আসুন আমরা সবাাই মিলে আমাদের গর্বের এই পক্ষীনিবাস কে রক্ষা করি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *